বিশ্বের সবচেয়ে ধনী আর রহস্যময় পরিবার সম্পর্কে বিস্ময়কর তথ্য!

by
Apr 24, 2017
285 Views
Comments Off on বিশ্বের সবচেয়ে ধনী আর রহস্যময় পরিবার সম্পর্কে বিস্ময়কর তথ্য!
0 0

“রথসচাইল্ড ফ্যামিলি” এই দুনিয়ার সবচাইতে সম্পদশালী এবং প্রভাবশালী পরিবার। এই পরিবারের একজন পূর্বসূরী মায়ের আমশেল রথসচাইল্ড সর্বপ্রথম তাঁর মাতৃভূমি জার্মানীতে ১৭৬০ সালে ব্যাংকিং সিস্টেম প্রতিষ্ঠা করেন। পুরো পৃথিবীতে এই পরিবার এত বেশি পরিমাণ সম্পদ জুগিয়েছে যে তার সঠিক হিসাব দেওয়া যে কারো পক্ষে কঠিন। দুনিয়ার যত ধনী ব্যাংক সবই তাদের নিয়ন্ত্রণে এবং তারা পৃথিবীর সবচাইতে প্রভাবশালী সংবাদ সংস্থা, সংবাদপত্র, টেলিভিশন চ্যানেল এবং টিভি নেওয়ার্ক এর হর্তাকর্তা। আসুন জেনে নিই এই রথসচাইল্ড ফ্যামিলি সম্পর্কে ১০টি শিহরণজাগানো তথ্য!

১।  এই দনিয়ার কারো সাধ্য নেই যে বলতে পারে রথসচাইল্ড ফ্যামিলির সম্পদের পরিমাণ কত! 

মূল রথচাইল্ড ফ্যামিলির মোট সম্পদ বেশ কয়েকটি পরিবারে বন্টিত থাকায় এবং এই পরিবারগুলো পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গা জুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকার দরুন কেউ হিসাব করে বলে দিতে পারে না তাদের মোট সম্পত্তির পরিমাণ কত। কারো কারো মতে তাদের সম্পত্তির পরিমাণ ৩৫০ বিলিয়ন ইউএস ডলার থেকে ৫০০ ট্রিলিয়ন ডলার!

২। ওয়াটারলু যুদ্ধে নেপোলিয়নের পরাজয় হবে সেটা রথচাইল্ড পরিবার আগে থেকেই জানত! 

নাথান রথসচাইল্ড আগে থেকেই এমনকি সরকারের গোয়েন্দাদের একদিন আগেই জানতেন নেপোলিয়ন যুদ্ধে হারবেন। তাই তিনি এটা সরকারের কাছে গোপন রেখেছিলেন এবং সাথে সাথে সরকারের যাবতীয় জয়েন্ট মার্কেট কিনে নেন এবং পরবর্তীতে দুই বছর পর ৪০% লাভে সেটা আবার সরকারের কাছে বিক্রি করেন।

৩। লর্ড ওয়াল্টার রথসচাইল্ড জেব্রা চালিত গাড়িতে চড়তেন! 

জেব্রাকেও যে পোষ মানিয়ে নেওয়া সম্ভব শুধুমাত্র এই জিনিসটা প্রমাণের জন্য বিশাল ব্যাংকিং সিস্টেম এর মালিক এবং প্রাণীবিজ্ঞান বিশারদ লর্ড ওয়াল্টার রথসচাইল্ড প্রতিদিন ৬ জোড়া জেব্রা চালিতে গাড়িতে চড়তেন যে জেব্রাগুলো পরে আর ব্যবহারের উপযোগী থাকতো না।

৪। লর্ড নাথান রথসচাইল্ড সে সময়ের পুরো ব্রিটিশ অর্থনীতি সিস্টেম কিনে নিয়েছিলেন! 

রথসচাইল্ড ফ্যামিলির কাজ ছিল সম্পদ অর্জন। তাই শুধুমাত্র লাভের খাতা মিলাতে নাথান রথসচাইল্ড পুরো ব্রিটিশ ইকোনমি পর্যন্ত কিনে ব্যবসা করেছিলেন! এটা আর কার পক্ষে সম্ভব হতে পারে?

৫। বিখ্যাত সুয়েজখাল এবং ব্রাজিল দেশ জন্মের পেছনে রয়েছে রথসচাইল্ড ফ্যামিলি! 

বিখ্যাত সুয়েজ খাল যা লোহিত সাগর এবং ভূ-মধ্যসাগরকে এক করেছে এবং যা ইউরোপ এবং এশিয়ার ব্যবসার যোগসূত্র রচনা করছে; এটির নির্মাণে বৃটিশ সরকারকে একপ্রকার বাধ্য করেছে রথসচাইল্ড ফ্যামিলি। এখানেই শেষ না, পর্তুগীজদের উপনিবেশ থেকে ব্রাজিলকে স্বাধীন করতে মায়ের নাথান রথসচাইল্ড পর্তুগালের সাথে চুক্তির মাধ্যমে প্রায় ২ মিলিয়ন স্টার্লিং এর বিনিময়ে ব্রাজিলকে স্বাধীন করেন। এবং একই সাথে নাথান রথসচাইল্ড এর পর্তুগীজ কোম্পানিতে পুরো ব্রাজিল দেশটির ঋণের দায়ের শর্ত থেকে যায় যেখান থেকে এই পরিবার বিশাল পরিমাণ অর্থ লাভ করে।

৬। ড্যারেক দ্য রথসচাইল্ড শুধু মাত্র প্লাস্টিক ব্যবহার করে শখের জাহাজ তৈরি করেছিলেন! 

ড্যারেক দ্য রথসচাইল্ড শখের বশে প্রায় ১২,৫০০ প্লাস্টিকের বোতল দিয়ে জাহাজ তৈরি করছিলেন যা দিয়ে তিনি তাঁর দলবল সহ প্রশান্ত মহাসাগরের মধ্য দিয়ে প্রায় ৮ হাজার মাইল পাড়ি দিয়েছিলেন।

৭। রথসচাইল্ড পরিবার জে. পি. মরগানকে সাথে নিয়ে পুরো আমেরিকা সরকারকে অর্থনৈতিক ধ্বস থেকে উদ্ধার করেছিল! 

১৮৯৫ সালে যুক্তরাষ্ট্র সরকার এক বিরাট অর্থনৈতিক ধ্বসের মধ্য দিয়ে যাচ্ছিল যার ফলে সরকার তাঁর ঋণের শর্ত পূর্ণ করতে ব্যর্থ হচ্ছিল ঠিক ঐ সময় এগিয়ে আসল রথসচাইল্ড পরিবার এবং জে পি মরগান। বিশাল অঙ্কের ঋন দিয়ে পুরো যুক্তরাষ্ট্র অর্থনীতিকে আবার চাঙা করে তুলল। যা অনেক বেশি লাভ দিয়ে রথসচাইল্ড পরিবারের কাছে ঋণের টাকা শোধ করতে হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র সরকারকে।

৮। স্বর্ণের দাম কত হবে তাঁর পুরোটাই নির্ধারণ করে রথসচাইল্ড ফ্যামিলি! 

৫ মেম্বার বিশিষ্ট The London Gold Market Fixing Ltd কর্তৃক রথসচাইল্ড ফ্যামিলির প্রাঙ্গনে সোনার দাম কত হবে তা প্রতিদিন দুই বার নির্ধারিত হয়।


তথ্যসূত্রঃ www. therichest.com

Article Categories:
বিশ্বজগৎ