নাক ডাকা থামাবেন যেভাবে

by
Mar 27, 2015
252 Views
Comments Off on নাক ডাকা থামাবেন যেভাবে

আমাদের মধ্যে অনেকেই নাক ডাকা সমস্যায় ভুগেন। এতে আমরা অনেকের কাছে বিরক্তির কারণও হয়ে উঠি! আপনি ঘুমের সময় যখন শ্বাসপ্রশ্বাস মুক্তভাবে নিতে পারেননা তখনি আপনি নাক ডাকা শুরু করে দেন! যাই হোক আপনাদের এই সমস্যার সমাধান কীভাবে লাঘব হবে তা জেনে নিই।

জীবনযাপন পালটানোঃ

১। ওজন কমানঃ ওজন কমিয়ে আপনি আপনার গলার ফ্যাটি টিস্যুকে কমাতে পারেন যেটি কিনা নাক ডাকা তৈরি করে।

২। ব্যায়ামঃ নিয়মিত ব্যায়াম আপনার শরীরকে সচল রাখে এবং নাক ডাকাও কমিয়ে দেয়।

৩। ধূমপান ত্যাগঃ ধূমপায়ীদের নাক ডাকার হার তুলনামূলকভাবে বেশি কারণ এতে তাদের গলার শ্বাসনালির বাতাস চলাচলকে বাঁধা দেয়।

৪। মদ্যপান, ঘুমের বড়ি ও স্নায়ুবিক উত্তেজনা প্রশমনকারী ঔষুধ পরিহার করুন।

৫। প্রতিদিন একটি নির্দিষ্ট ঘুমের ধরণ অনুসরণ করুন।

ঘুমানোর আগে করণীয় কাজঃ

১। নাসাছিদ্র পরিষ্কার করা।

২। শয়নকক্ষটি ভালো বাতাস চলাচলের ব্যবস্থা রাখা।

৩। চার ইঞ্চি উঁচু বালিশ ব্যবহার করা।

৪। ঘুমাতে যাওয়ার দু’ঘণ্টা আগে ভারি খাবার ও ক্যাফিন পরিহার করা।

৫। কাত হয়ে শোওয়া।

গলার ব্যায়ামঃ

প্রতিদিন ৩০ মিনিটের গলার ব্যায়াম আপনার নাক ডাকা কমিয়ে দিতে পারে। ইংরেজি স্বরবর্ণ উচ্চারণ ও জিহ্বা নাড়ানো আপনার গলার পেশীকে শক্তিশালী করতে সহায়তা করে।

১। দিনে কয়েকবার তিন মিনিট করে ইংরেজি স্বরবর্ণগুলি (A,E,I,O,U) জোরে জোরে উচ্চারণ করুন।

২। প্রতিদিন তিন মিনিট করে জিহ্বার ডগাটি উপরের দাঁতের সারিতে বসিয়ে পেছনে টেনে নিন।

৩। মুখ বন্ধ করে ঠোঁট চেপে রাখুন ৩০ সেকেন্ড ধরে।

৪। মুখ খোলা রেখে চোয়াল ডানপাশে নিয়ে ৩০ সেকেন্ড ধরে রাখুন। বানপাশের জন্যেও একইভাবে করুন।

৫। খোলা মুখে বার বার গলার আলজিবটি নাড়ান ৩০ ধরে। (আপনি এক্ষেত্রে আয়না ব্যবহার করতে পারেন)

আপনি যদি উপরের সমাধানগুলি দিয়েও কোনো উপশম না পান তাহলে আপনি ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে পারেন।

তথ্যসূত্রঃ হেল্পগাইড।

Facebook Comments
Article Categories:
বিবিধ